study style change

কেরানি তৈরির উৎস কিংবা কেরানি নির্ভর প্রতিষ্ঠান না বানিয়ে বিজ্ঞানভিত্তিক ও মানবিক প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা চেষ্টা অব্যাহত আছে বলেছেন, পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান । শুক্রবার সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার দিকে সরকার বিশেষ নজর দিয়েছে, প্রতিটি জেলাতেই মেডিকেল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।’

সুনামগঞ্জের হাওর এলাকাতেও মেডিকেল কলেজের কাজ শুরু হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘দেশে এখন একশোর ওপরে মেডিকেল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় আছে। অথচ এক সময় এসব চিন্তার বাইরে ছিল। তাই দেশের মানুষকে উন্নয়নের পক্ষে থাকতে হবে।’

তিনি  বলেন, ‘দেশে টাকার কোনো অভাব নেই। কিন্তু ভালো মানুষের অভাব আছে। যদি দুর্নীতি কমানো যায়, তাহলে আমরা দ্রুত উন্নত দেশে পরিণত হব। আমরা চেষ্টা করছি যাতে দেশে দুর্নীতি দমন করা যায়। এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবার আগে নিজ দল থেকেই শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন।’

আওয়ামী লীগ সরকারের টানা ১২ বছরের শাসনামলে দেশে অনেক উন্নয়ন হয়েছে উল্লেখ করে এম এ মান্নান বলেন, ‘দেশে ব্যাপক উন্নতি হয়েছে। যেখানে অতীতে এই উন্নয়ন কল্পনা করা হতো না, সেখানে আওয়ামী লীগ সরকার বাস্তবে তা করে দেখাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের কোনো কমিটিতে দুর্নীতিবাজদের স্থান হবে না। যাঁরা নয়ছয় করে সম্পদের পাহাড় গড়েছেন, তাঁদের ধরা হচ্ছে। দল থেকে বহিষ্কার করা হচ্ছে। তাই সাবধান হয়ে যান। দুর্নীতি করে কেউ পার পাবেন না। পাপিয়াদের মতো দলে অনেকেই আছেন, তাদের একে একে সবাইকে ধরা হবে।’

আওয়ামী লীগকে অসাম্প্রদায়িক দল উল্লেখ করে এম এ মান্নান বলেন, ‘আমরা সব ধর্মের মানুষকে সমানভাবে দেখি। আমরা সাম্প্রদায়িকতা বিশ্বাস করি না। তবে কিছু মতলববাজ আছে, যারা দেশের মানুষকে উল্টাপাল্টা বুঝিয়ে নিজেদের ফায়দা হাসিল করতে চায়। এদের থেকে সাবধান থাকতে হবে।’

সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ নীলিমা চন্দের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সোহেল মাহমুদ, উপাধ্যক্ষ মাজহারুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল মোমেন, ব্যবসায়ী মো. জিয়াউল হক, সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা উদযাপনের আহ্বায়ক ইফতেখার আলম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *